সেরে উঠছেন সৌমিত্র, শুনছেন রবীন্দ্র সংগীত

October 17, 2020

ভারতের জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত কলকাতার বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থার আরও উন্নতি হয়েছে। করোনামুক্ত হওয়ার পর চিকিৎসায় ভাল সাড়া দিচ্ছেন।

গত কয়েক দিন ধরে তন্দ্রাচ্ছন্ন থাকার পর এখন কথাও বলছেন তিনি। শুনছেন পছন্দের গান ও রবীন্দ্র সংগীত।কলকাতার বেলভিউ নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে ভালো ঘুমও হয়েছে সৌমিত্রের। যদিও এখনও তাকে আইটিইউ-তে রাখা হয়েছে।

গত ৯ দিন ধরে তিনি দক্ষিণ কলকাতার ওই বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। গত শুক্রবার থেকে তার শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হতে শুরু করে। বুধবার থেকে ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন সৌমিত্র। শরীরিক জটিলতার কারণে নতুন করে কোনও সমস্যা হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে আগামী দু’তিন দিনে শারীরিক পরিস্থিতির আরও উন্নতি হবে।”

হাসপাতাল সূত্রে খবর, আজ শুক্রবার তার নানা ধরনের শারীরিক পরীক্ষা করা হবে। শরীরে অক্সিজেনের তারতম্যের কারণে মাঝেমধ্যে তার বাইপ্যাপ সাপোর্ট লাগছে। করোনা চিকিৎসায় দু’বার প্লাজমা থেরাপি করা হয়েছে। তার ফলে শারীরিক পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। হৃদযন্ত্র, কিডনি, যকৃৎ-সহ অন্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সচল রয়েছে অভিনেতার। শরীরে সোডিয়াম-পটাশিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিক রয়েছে।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ১৯৩৫ সালের ১৯ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার কৃষ্ণনগরে। পড়াশোনা করেন হাওড়া জেলা স্কুল, স্কটিশ চার্চ কলেজ, কলকাতার সিটি কলেজ এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে।

বাংলা চলচ্চিত্রের এই কিংবদন্তি ২০১২ সালে পেয়েছেন ভারতের চলচ্চিত্র অঙ্গনের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মান দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার। আরও পেয়েছেন দেশ-বিদেশের বহু পুরস্কার। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ফ্রান্সের ‘লেজিয়ঁ দ্য নর’ পুরস্কার (২০১৮)। পেয়েছেন ভারতের রাষ্ট্রীয় সম্মান পদ্মভূষণসহ (২০০৪) ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র, সংগীত নাটক একাডেমি, ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কারসহ নানা পুরস্কার।

খবর সারাবেলা / ১৭ অক্টোবর ২০২০ / এমএম