বিশ্ব বাজারে তেলের দাম বাড়লেও রিজার্ভ বাড়ছে আরব দেশ গুলোতে

September 19, 2022

বিশ্ব বাজারে জালানী তেলের মূল্যবৃদ্ধি হলেও মধ্যপ্রাচ্যের তেল উৎপাদনকারী দেশ গুলোতে বাড়ছে তাদের রিজার্ভ ও জিডিপি আয়। এদের মধ্যে কুয়েতেই ৯০ভাগ জিডিপি আয় আসে দেশটির জালানী তেল উৎপাদন থেকে। ক্রেডিট রেটিং এজেন্সি ‘মুডি’স’ এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছে।ক্রেডিট রেটিং এজেন্সি মুডি’স এর বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম আল-রাই এক প্রতিবেদনে জানায়, আগামী দুই বছরে তেলের দাম বৃদ্ধি উপসাগরীয় দেশগুলির আর্থিক এবং বাহ্যিক অবস্থানে উল্লেখযোগ্য উন্নতি ঘটাবে।

সংস্থাটি আরো জানায়, বিশ্বব্যাপী তেলের চাহিদা এবং মন্দা থেকে বেরিয়ে আসতে জ্বালানি উৎপাদন বৃদ্ধির অনুমতি দিয়েছে উপসাগরীয় রাষ্ট্রগুলি। এদিকে , পেট্রোলিয়াম রপ্তানিকারক দেশগুলির সংস্থা (ওপেক) এর পক্ষ থেকে উৎপাদন বাড়য়ে দেওয়ার কথা জানানো হয়েছ।ওপেক বলছে, গত এক বছরে অপরিশোধিত তেলের উৎপাদন ২৬.৩ মিলিয়ন ব্যারেল থেকে ২৮.৯ মিলিয়ন ব্যারেলে তথা ৯.৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

একই সময়ে, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং কুয়েত তাদের অপরিশোধিত তেলের উৎপাদন প্রায় ১৫ শতাংশ বৃদ্ধি করেছে, যেখানে সৌদি আরবের উৎপাদন ১৭.৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।এদিকে ওপেক-নেতৃত্বাধীন জোটের সদস্য না হওয়ায় গত কয়েক বছরে উল্লেখযোগ্যভাবে উৎপাদন বাড়ায়নি বাহরাইন এবং কাতার।যেসব দেশ হাইড্রোকার্বন সেক্টরের উপর নির্ভরশীল, তেলের দামের ওঠানামার কারণে সেসব দেশ বেশি উপকৃত হবে বলে জানিয়েছে মুডি’স।

আবার, মার্কিন অশোধিত তেল ব্যারেল প্রতি ২ ডলার বেড়ে ৮৮.৮৫ ডলার হয়েছে, যা আগের সেশনে ০.৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছিল। অর্গানাইজেশন অফ দ্য পেট্রোলিয়াম এক্সপোর্টিং কান্ট্রিজ (ওপেক) এবং এর সহযোগীদের (ওপেক প্লাস) দ্বারা প্রতিদিন ১ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমানো হয়েছে। যা বৈশ্বিক চাহিদার মাত্র ০.১ শতাংশ। গ্রুপটি সম্মত হয়েছে যে, তারা ৫ অক্টোবর পরবর্তী নির্ধারিত বৈঠকের আগে উৎপাদন সামঞ্জস্য করতে যে কোনও বৈঠক করতে পারে।

শীর্ষ ওপেক উৎপাদক সৌদি আরব গত মাসে তেলের দামের পতন ঠেকাতে উৎপাদন হ্রাসের ইঙ্গিত দিয়েছিল। রাশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার নোভাক বলেছেন, মস্কো এবং তার ওপেক মিত্রদের তেল উৎপাদন কমানোর সিদ্ধান্তের পিছনে দুর্বল বৈশ্বিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির প্রত্যাশা ছিল।

খবর সারাবেলা / ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ / এমএম